Phone: +88 01712147261

8 ways to boost contact forms conversion rate/৮ টি কন্টাক্ট ফর্ম টিপস যার মাধ্যমে কনভার্সন রেট বাড়ানো যায়

Latest News and Blog on Website Design and Bangladesh.

8 ways to boost contact forms conversion rate/৮ টি কন্টাক্ট ফর্ম টিপস যার মাধ্যমে কনভার্সন রেট বাড়ানো যায়

কন্টাক্ট ফর্মের মাধ্যমে কন্টাক্ট কে গ্রাহকে পরিণত করার জন্য আমাদেরকে ফর্ম অপ্টিমাইজেশন টেকনিক গুলা জানতে হবে যেমন ফর্মটি কোথায় আছে ও তাতে কত গুলো ফিল্ড আছে ইত্যাদি ।এখানে ৮ টি টিপস নিয়ে আলোচনা করা হলো যা আপনার কনভার্সন রেট বাড়িয়ে দিতে সাহায্য করবে।

 

১. ব্যবহারকারীদের জন্য একটি সুস্পষ্ট সুবিধা প্রদান :
একটি পূর্ণাঙ্গ কন্টাক্ট ফর্ম তৈরির আগেই ঠিক করে নিতে হবে ফর্মের কার্যকারিতা যা এক জন ব্যাবহারকারীকে ফরমটি পূরণ করতে বাধ্য করে বা ফরমটি পূরণ করতে উদ্বুদ্দ হয়।
কেন তারা আপনাকে তাদের তথ্য দিবে? এ থেকে তারা কি পাবে?
আমরা কন্টাক্ট ফর্মে স্পষ্ট ভাবে জানিয়ে দিতে পারি এর থেকে আসলে কি লাভবান হওয়া যাবে।
আপনি যদি ইমেইল এর মাধ্যমে বিশেষ কোনো মূল্যছাড় এর অফার দেন, তাহলে আপনাকে সেই বিষয়ের উপরি নজর রাখতে হবে।
আপনি যদি আপনার ব্যাবহারকারীকে আপনার সাইটে একচেটিয়া কনটেন্ট পেতে অনুমতি দেন তবে এটি তাদের সব সময় স্মরণ কোরিয়া দিন।
যাই হোক না কেন, এটি আপনার কন্টাক্ট ফর্মে স্পষ্ট সুন্দর এবং পরিষ্কার রূপে উপস্থাপন করুন।
যদি ব্যাবহারকারীরা মনে করে এখানে তাদের তথ্য দিয়ে কোনো লাভ নেই , তবে তারা সেটি দিবে না।

২. ফিল্ডের সংখ্যা যত দূর সম্ভব কম রাখা
কোনো কন্টাক্ট ফর্মে বেশি ফিল্ড থাকলে তা ব্যবহারকারিক কন্টাক্ট ফর্ম ব্যাবহারে নিরুৎসাহী করে।
কোনো ব্যাবহারকারীই ৫ থেকে ১০ মিনিট সময় নিয়ে এটা ব্যাবহারে উৎসাহী হবে না। এবং তারা যদি দেখে সেখানে ২০ টা বা তারচে বেশি ফিল্ড আছে তাহলে তা দেখা তো দূরের কথা তারা ওখান থেকে বের হয়ে যাবে।
যে কোনো কন্টাক্ট ফর্মের জন্য সব সময় অতি জরুরি নিশ্চিত ফিল্ড গুলো রাখা উচিত।
যদি ইমেইল দিয়েই আপনার কাজ চলে , তবে অযথা ফোন নম্বরের জন্য ফিল্ড তৈরি করার কোনো মানে নাই। যদি কন্টাক্ট ফর্ম কে একটা ফিল্ড দিয়ে তৈরি করা যায় তবে সবচে ভালো।

৩. উজারফ্রেইন্ডলী লেআউট তৈরি করা:
কন্টাক্ট ফর্ম তৈরির সময় বিশেষ কিছু বিষয়ের উপর খেয়াল রাখা যাতে করে কন্টাক্ট ফরমটি উজারফ্রেইন্ডলী হয়।
এর অর্থ হলো কার্যকারিতা এবং দৃষ্টিনন্দন উভয়ের ক্ষেত্রেই সুনিপুণ ভাবে নকশা করা।
আপনার ফর্মগুলিতে ফিল্ড লেবেল, যথাযথ আকারের বাক্স এবং সন্তোষজনক পেইজে বসানোর মতো জিনিস থাকা উচিত।
সাধারণ ভাবে বলতে গেলে ব্যাবহারকারীকে ফর্ম ব্যবহার সহজ করে দিতে হবে।

৪. একটি শক্তিশালী সিটিএ রাখতে হবে:
শক্তিশালী কন্টাক্ট ফর্মের চাবি হলো কল টু অ্যাকশন (সিটিএ)। সিটিএ হলো সেটাই যেটা দিয়ে আপনি ব্যবহারকারীদের কী করতে চান এবং তাদের সেটি করার জন্য উদ্বুদ্দ করেন ।
কখনও কখনও এটি “আমাদের সাথে “যোগাযোগ করুন” হিসাবে কাজ করে, তবে অন্য সময় আপনি আরও কিছুটা বিস্তারিত বলতে চাইতে পারেন।
আপনার সিটিএ গুলি আপনার সমস্ত কন্টাক্ট ফর্মগুলিতে স্পষ্ট, শক্তিশালী এবং লক্ষণীয় হওয়া উচিত।
অন্য কথায়, তাদের পরিষ্কার ধারণা থাকা দরকার তারা ব্যবহারকারীদের দিয়ে কি করতে চান, তাদেরকে বাধ্য করতে হবে, তারা যেটা করতে চায়।
উদাহরণস্বরূপ, আপনি চান ব্যবহারকারীরা আপনার সাপ্তাহিক বোটিং নিউজলেটারের জন্য সাইন আপ করুক।
আপনি একটি সিটিএ ব্যবহার করে-নৌকা বাইচের ব্যবসার জন্য সাইন আপ করে, বোটিং বিশ্বের সাপ্তাহিক সর্বশেষ বিষয়গুলির আপডেট প্রদান করে বোটিং বিশ্বে আলোড়ন সৃস্টি করতে পারেন।
আপনাকে অবশই নিশ্চিত করতে হবে যেন আপনার সব সিটিএ গুলো উজ্জাল ও নজরকারা একটি ক্লিক বাটন এ সংযুক্ত থাকে যা ব্যাবহারকারীকে আকৃষ্ট করে ও ব্যবহার করতে বাধ্য করে।

৫. রেস্পন্সিভ ডিজাইন করতে হবে:
যখন মোবাইল-ফ্রেন্ডলিনেস বিষয়টি আসে তখন কন্টাক্ট ফর্মগুলি আপনার সাইটের অন্য যে কোনও কিছুর মতোই মোবাইলের জন্যও ডিজাইন করা প্রয়োজন।
সমস্ত ইন্টারনেট ট্র্যাফিকের ৫০% এরও বেশি মোবাইল থেকে আসে , তাই আপনার মোবাইল ফ্রেন্ডলি কন্টাক্ট ফর্ম থাকা জরুরি।
সবসময় রেস্পন্সিভ ডিজাইন করতে হবে ও কন্টাক্ট ফর্মকে এমনভাবে উপস্থাপন করতে হবে যাতে করে ব্যাবহারকারীর নজরে আসে ও ব্যাবহারে বাধ্য হয়।
তার সাথে খেয়াল রাখতে হবে- লেখা স্পষ্ট ভাবে পড়া যায় ও ফর্মের ফিলড গুলো স্পষ্ট থাকে সর্বোপরি ক্লিক বাটন টি ক্লিক করার জন্য স্পষ্ট থাকে।

৬. বড় ফর্ম গুলোকে ছোট রাখা: 
আপনার ফর্মগুলি যতটা সম্ভব সংক্ষিপ্ত রাখার গুরুত্ব আমরা ইতিমধ্যে উল্লেখ করেছি। যদিও কখনও কখনও বেশি তথ্যের প্রয়োজন এ আমরা ফর্ম বড় করে থাকি। এ রকম অবস্থায় আমাদের ফর্মকে কয়েক ভাগে বিভক্ত করে নিতে হবে। .
এখানে ব্যাপার টি হ’ল ব্যবহারকারীরা দশটি ফিল্ডকে একত্রে দলবদ্ধ করে দেখলে বিরক্ত ভাব হতে পারে, তাই যদি আপনার ফর্মটি কয়েকটি ছোট পেইজে ফিল্ড গুলি ভাগ করে দেয়া হয় তবে এটি দেখতে খারাপ মনে হবে না ও ব্যাবহাকারীকে ব্যাবহারে উৎসাহিত করবে ।
ব্যবহারকারীদের একটি ট্র্যাকার বসিয়ে জানানো যেতে পারে , তারা কোন পর্যায়ে আছে এবং এ ভাবে একজন ব্যাবহারকারীকে গাইড করে শেষ অব্দি কাজটি শেষ করতে সহয়ওতা করা।

৭. পরবর্তী স্টেপ জানানো:

কন্টাক্ট ফর্ম অপ্টিমাইজেশনের আরেকটি পদ্ধতি হ’ল এরপরে কী ঘটবে তা ব্যবহারকারীদের কাছে পরিষ্কার করে দেওয়া।
ইতিমধ্যে সিটিএ ভিত্তিক কিছু ধারণা তাদের হয়েছে , তবে পরবর্তী পদক্ষেপগুলি কেমন দেখতে আশা করতে পারে তারা তা সুনির্দিষ্টভাবে ব্যাখ্যা করে ফর্মটি অনুসরণ করতে সহায়তা করা ।
উদাহরণস্বরূপ, আপনি আমাদের কাছ থেকে ৩-৫ দিনের ভিতর একটি ইমেইল পাবেন, যেখানে আপনার জন্য আপনার প্রয়োজন অনুযায়ী কোটেশন দেয়া হবে-এটার সাথে যোগ করতে পারেন- আপনারা যা পাবেন তা কোনও স্প্যাম বা অযৌক্তিক ইমেল নয়!
অন্য ভাবেও এটি করা যেতে পারে-একটি কনফার্মেশন ইমেইল দিয়া তাদেরকে পুরো ব্যাপাটি বুঝিয়ে দেয়া।

৮. এ/বি পরীক্ষা চালানো:

বিভিন্ন সংস্করনের কন্টাক্ট ফর্মগুলি পরীক্ষা করে দেখা উচিত। একটিকে অপরটির বিপরীতে পরীক্ষা করতে পারেন। পরীক্ষায় যেটি ভালো করবে সেটিকে ব্যবহার করবেন।
এ / বি পরীক্ষা চালিয়ে আপনি আপনার কাঙ্খিত ফরমটি খুঁজে পেতে পারেন। ফর্ম্যাটটি ব্যবহার করার পরে আপনি আপনার আয় দীর্ঘদিন বাড়িয়ে রাখতে পারবেন।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *