Phone: +88 02 9121704

Top Mobile App Development Trends 2020 / টপ মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলপমেন্ট ট্রেন্ড ২০২০

Latest News and Blog on Website Design and Bangladesh.

Top Mobile App Development Trends 2020 / টপ মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলপমেন্ট ট্রেন্ড ২০২০

আমরা আর একটি বছর সমাপ্তি করে নতুন বছরে  পদার্পন করছি , এখন ২০২০ সাল। মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন এবং ডিভাইস উন্নতির চরমে।

মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন এবং ডিভাইসগুলি একটি দুর্দান্ত বিবর্তনের মধ্য দিয়ে এগোচ্ছে  যেখানে  নতুন ট্রেন্ডের আবির্ভাব এবং বিদ্যমানগুলির উন্নতি দেখবে ব্যাবহারকারীরা।

মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলপমেন্ট যা ভবিষ্যতে মোবাইল ডিভাইস ব্যবহারে বিপ্লব ঘটাবে বলে আশা করা হচ্ছে। তার কিছু বিষয় তুলে ধরা হলো:

টপ মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলপমেন্ট ট্রেন্ড ২০২০/ Top Mobile App Development Trends 2020

Share List
  • ইনস্ট্যান্ট অ্যাপ্লিকেশন

    image-1

    ইনস্ট্যান্ট এপ্লিকেশন ডেভেলপমেন্ট এর মাধ্যমে মোবাইল ব্যাবহারকারীর মোবাইল ব্যবহারের অভিজ্ঞতা আরো সহজ করবে। মোবাইল ব্যাবহারকারীদের সব সময় চাহিদা থাকে ভালো মোবাইল এপ্লিকেশন যা অল্প সময়ে লোড হবে এবং তাদের ব্যবহারের অভিজ্ঞতা অনেক ভালো হবে। ইনস্ট্যান্ট এপ্লিকেশন এই সময়ের সবচেয়ে ভালো এপ্লিকেশন এর মর্যাদা পাবে কারন এই এপ্লিকেশন ব্যবহারকারীকে  সেই  সুবিধাটাই দেয়। 

    1

  • পরিধেয় / ওয়্যারেবল

    image-1

    ২০২০ সালের ভিতর  আরও পরিধেয়যোগ্য গ্যাজেট আনার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে এপ্লিকেশন ডেভেলপাররা । যেমন রিস্ট ওয়াচ ,ফিটনেস  ব্যান্ড, মুভমেন্ট ট্র্যাকার এবং আরও অনেক কিছু … মার্কেট ইন্টেলিজেন্স রিপোর্ট অনুযায়ী ২০২০ সাল নাগাদ পরিধানযোগ্য গেজেটের ব্যবহার ৭০% শতাংশ পর্যন্ত বৃদ্ধি পেতে পারে।

    2

  • মোবাইল ওয়ালেট ও পেমেন্ট গেটওয়ে

    image-1

    আমরা আস্তে আস্তে নগত টাকা থেকে সরে ডেবিট, ক্রেডিট এ চলে এসে, সেখান থেকে মোবাইল ওয়ালেট ও ডিজিটাল টাকার ব্যবহার শুরু করেছি। যা আমাদের প্রাত্যহিক জীবনকে আরো সহজ করে তুলেছে। বি আই ইন্টেলিজেন্স রিপোর্ট অনুযায়ী, ২০২০ সাল নাগাদ মোবাইল পেমেন্ট ৩০৫ বিলিয়ন ডলার এ পৌঁছাবে যা বাৎসরিক উন্নয়নের ৮৫% শতাংশ হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

    3

  • ক্লাউড এপ্লিকেশন

    image-1

    প্রতিটি স্মার্টফোন এর স্টোরেজ এ একটি  নির্দিষ্ট সীমাবদ্ধতা আছে। সুতরাং এখন ক্লাউড-ভিত্তিক অ্যাপকে সংযুক্ত করার সময় হয়েছে কারণ এটি স্টোরেজ সমস্যার সমাধান করবে। বর্তমানে অনেক  ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ক্লাউড ইন্টিগ্রেশন এ বিনিয়োগ  করতে আগ্রহী হচ্ছে যা উত্তর উত্তর বৃদ্ধি পাবে।

    4

  • অগমেন্টেড রিয়েলিটি ও ভার্চুয়াল রিয়েলিটি

    image-1

    সর্বশেষ ধারণার উপর ভিত্তি করে, ডেভেলপাররা আশা করছেন শ্বাসরুদ্ধকারী মোবাইল অ্যাপ তৈরী হবে এ আর ও ভি আর এর উপর। যা যেকোনো ডিভাইস এ ব্যবহার উপযোগী হবে এবং মার্কেট এ পাওয়া যাবে। যা সত্যিকারে একটা জাদুকরী ব্যাপার হবে অ্যাপ ব্যবহারকারীদের মাঝে। স্ট্যাটিসটিক্স রিপোর্ট থেকে আরো  জানা যায় যে , ২০২০ সাল নাগাদ ৬ বিলিয়ন এর উপর এপ্লিকেশন মোবাইল অগমেন্টেড রিয়ালিটির উপর তৈরি হবে। কৌশলগত ভাবে অগমেন্টেড রিয়ালিটি ও ভার্চুয়াল রিয়ালিটি মোবাইল ব্যবহারের উপর যথেষ্ট প্রভাব ফেলবে।

    5

  • চ্যাটবট

    image-1

    আজ কাল অধিকাংশ চ্যাটবট অন-ডিমান্ড অ্যাপ্লিকেশনের অংশ হয়ে উঠেছে, যা আপনাকে আপনার গ্রাহকদের কাছে রিয়েল-টাইমে দ্রুত প্রতিক্রিয়া জানাতে সহায়তা করে। পরিসংখ্যান অনুযায়ী সারা বিশ্বের চ্যাটবট মার্কেট, ২০২৫ সাল নাগাদ ১২৫০ মিলিয়ন ডলার আয় করবে। যা ২০১৬ সালের তুলনায় ১০০০ মিলিয়ন ডলার বৃদ্ধি পেয়েছে। এখানে আমরা WPbot এর কথা বিশেষ করে বলতে পারি যা সর্বাধিক ব্যাবহৃত ওয়ার্ডপ্রেসের প্লাগিন হিসেবে যে কোনো ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইটে কাজ করবে। WPBot একটি সহজ ওয়ার্ডপ্রেস প্লাগিন। WPBot প্লাগ এন্ড প্লে হিসাবে ওয়ার্ডপ্রেস এ ইনস্টল করা যায়, এটা এতটাই সহজ যে, কোনো টেকনিক্যাল জ্ঞান এর প্রয়োজন নেই। আপনি গুগলের ডায়ালগফ্লোতে ওয়ার্ডপ্রেসের জন্য এই চ্যাটবটকে সংযুক্ত করতে পারবেন। যা আপনার চ্যাটবটকে আরো স্মার্ট করবে। আরো বিস্তারিত এই লিংকে: https://wordpress.org/plugins/chatbot/

    6

  • অন-ডিমান্ড অ্যাপস

    image-1

    অন-ডিমান্ড সার্ভিস অ্যাপ্লিকেশনগুলি দ্রুত গতিশীল প্রযুক্তি ভিত্তিক কোম্পানিতে  পরিণত হয়ে নিজেদেরকে  সক্ষম করে, ব্যবসায়ের পরিচালনার পদ্ধতিটিকে উল্লেখযোগ্যভাবে বিকশিত করেছে। বি আই ইন্টেলিজেন্স রিপোর্ট অনুযায়ী, ২০২০ সাল নাগাদ মোবাইল পেমেন্ট ৩০৫ বিলিয়ন ডলার এ পৌঁছাবে যা বাৎসরিক উন্নয়নের ৮0% হবে বলে আশা করা হচ্ছে ২০১৫-২০২০ সালের মধ্যে ।

    7

  • বেকন টেকনোলজি

    image-1

    বেকন প্রযুক্তিতে কাজ করার জন্য  আরো অনেক অ্যাপ তৈরি হবে। যা ভার্চুয়াল গাইড এবং ব্যক্তিগত তথ্য শেয়ার করাকে অধিকতর সহজ করবে।

    8

  • 9. এপ্লিকেশন পারফরমেন্স ম্যানেজমেন্ট ও এন্টারপ্রাইস মবিলিটি ম্যানেজমেন্ট (এ পি এম ও ই এম এম)

    image-1

    মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলপমেন্ট এর জন্য এ দুটি বিষয় খুবই প্রয়োজনীয় এবং সামনে আগত মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলপমেন্ট ট্রেন্ড এর জন্য এ পি এম ও ই এম এম এ দুটি বিষয় কে বাদ দিয়ে তা করা যাবে না। এটি বাধা বিপত্তি দূর করতে এবং সামগ্রিক মোবাইল অ্যাপের কার্যকারিতা উন্নত করতে সহায়তা করবে।  

    9

  • মোবাইল অ্যাপ নিরাপত্তা

    image-1

    মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন এর নিরাপত্তা বাড়ানো একটি চলমান প্রয়োজন হয়ে দাড়াবে  মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলপারদের কাছে যা উত্তর উত্তর বাড়বে। অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলপমেন্টে  এই উপাদানটি ২০২০ সালে দুর্দান্ত মনোযোগ আকর্ষণ করবে সবার মাঝে।

     

    10

  • স্মার্ট থিংস

    image-1

    এই নতুন বিষয়টি বিকশিত ও অগ্রসরমান, তাই এটি  উচ্চতর ক্ষমতা, অধিক সুরক্ষা ও বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী হওয়া প্রয়োজন। এটি ইতিমধ্যে অ্যাপ ব্যবহারকারীদের প্রতিদিনের রুটিনে বিপ্লব ঘটাচ্ছে।

    11

  • মোশন এন্ড লোকেশন সেন্সিং

    image-1

    মোশন সেন্সিং অ্যাপটি চুরি বিরোধী, শক্তি-সঞ্চয় এবং সুরক্ষার মতো সমস্যাগুলি মোকাবেলায় ব্যবহার করা যেতে পারে। লোকেশন সেন্সিং এপ্লিকেশন খুব বেশি রকমে  ব্যবহার হয় গেমিং, জিও ট্যাগিং, ফিটনেস এপ্লিকেশন ও ভেহিক্যাল ন্যাভিগেশন এ । প্রতিটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান তাদের গ্রাহকদের ধরে রাখতে ও আকৃষ্ট করতে ভিজ্যুয়াল পজিশনিং সিস্টেম ব্যবহার করবে। যা তাদের ব্যবসা বৃদ্ধিতে সহায়তা করবে।

    12

Image Version:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *